লিংক

নির্দেশনা: ব্লগ পোষ্টের পূর্বে অবশ্যই করণীয় সমূহ

টেকমাস্টার ব্লগে আমার প্রকাশনাঃ

টেকমাস্টার ব্লগে নতুন প্রকাশনা (পোষ্ট) লিখার ক্ষেত্রে এখন থেকে যে সব নিয়ম পালন করতে হবে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে এ প্রকাশনায়।

http://techmasterblog.com/25478/tutorials

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) – Imgur.com এ ইমেজ আপলোড এবং কমেন্টে পিকচার দেয়া

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

সবাই কেমন আছেন? আশা করি ভাল। ওয়ার্ডপ্রেস.কম বা ওয়ার্ডপ্রেস সাইট গুলোতে কমেন্টে পিকচার পোষ্ট করতে গিয়ে অনেকেই সমস্যায় পড়েন। তাই আজ ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) এ কমেন্টে কিভাবে পিকচার দেয়া যায় তা নিয়ে লিখব। এটি ওয়ার্ডপ্রেস চালিত ব্লগ গুলোতেও কাজ করবে। চলুন তাহলে পোষ্ট শুরু করা যাক।

পিকচার কমেন্ট দেয়ার আগে আপনাকে ইমেজ কোন হোস্টিং সাইটে আপলোড করতে হবে। আমরা আজকের পোষ্টের জন্য ইমেজ হোস্টিং সাইট হিসেবে imgur.com ব্যবহার করব। এটি একটি ফ্রি ইমেজ হোস্টিং সাইট। তাহলে চলুন প্রথমে দেখা যাক এ সাইটে কিভাবে ইমেজ হোস্টিং / আপলোড করতে হয়।

এবার, imgur.com সাইট এ গিয়ে –

  • কম্পিউটার থেকে পিকচার আপলোড করতে Computer লেখাতে ক্লিক করে পিকচার সিলেক্ট করে দিন।
  • ইন্টারনেটের অন্য কোন ঠিকানা থেকে পিকচার আপলোড করতে Web লেখাতে ক্লিক করে পিকচারের লিঙ্ক দিন।
  • আপনি কম্পিউটার থেকে কোন পিকচার ড্র্যাগ-ড্রপ (Drag-N-Drop) করে এই পেজে দিয়েও পিকচার সিলেক্টের কাজটি করে দিতে পারবেন।
  • আপনি চাইলে কম্পিউটারে কোন ছবি কপি করে এই পেজে থাকা অবস্থায় Ctrl + V চাপ দিয়েও পিকচার সিলেক্টের কাজটি করে দিতে পারবেন।

পিকচার সিলেক্ট করা হলে নিচের মত একটি বক্স দেখা যাবে। সেখান থেকে Start Upload এ ক্লিক করে পিকচার আপলোড হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে থাকুন।

পিকচার আপলোড হচ্ছে…

পিকচার আপলোড হয়ে গেলে নিচের মত একটি পেজ দেখতে পাবেন। পেজের বাম পাশে আপলোড করা পিকচারের ছবি এবং ডান পাশে পিকচারের জন্য বিভিন্ন লিঙ্ক দেয়া আছে। ডান পাশ থেকে লিঙ্ক গুলোর মধ্যে Direct Link (email & IM) লেখার নিচের বক্সের লিঙ্কটি আমাদের কাজের জন্য লাগবে। লিঙ্কটি কপি করে রাখুন।

দ্রষ্টব্যঃ আপনি পিকচারটি imgur.com থেকে মুছে ফেলতে চাইলে Deletion Link লেখার নিচের বক্সের লিঙ্কটিতে গিয়ে মুছে ফেলতে পারবেন।

এবার ওয়ার্ডপ্রেস.কম এর বা ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে বানানো যে কোন ব্লগের কমেন্ট বক্সে গিয়ে নিচের কোডটির মত করে পিকচার দিতে পারবেনঃ

<img src="Picture Link" title="Picture Title" />

এখানে, Picture Link এ পিকচারের লিঙ্ক এবং Picture Title এ পিকচারের টাইটেল দিতে হবে।

উদাহরনঃ

<img src="http://i.imgur.com/trDcC.jpg" title="Ball – Made by pencil" />

প্রিভিউঃ

দ্রষ্টব্যঃ Picture Link এ পিকচারের ডিরেক্ট লিঙ্কটি দিতে হবে, পিকচারের পেজের লিঙ্ক নয়!

আশা করি বুঝতে কোন সমস্যা হয়নি। তারপরও কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে বলতে পারেন।
আজ এ পর্যন্তই।
আল্লাহ হাফেজ…

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) ব্লগে গুগল ট্রান্সলেট (Google Translate) বাটন যুক্ত করার সহজ নিয়ম (শুধু বাংলা থেকে ইংরেজী)

গুগল ট্রান্সলেটর নিয়ে এর আগের পোষ্টে লিখে ছিলাম। পোষ্টটি এখান থেকে দেখে আসতে পারেন। আজ দেখাব কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) ব্লগে গুগল ট্রান্সলেটর বাটন যুক্ত করার যায়। আমি শুধু বাংলা থেকে ইংলিশ ট্রান্সলেট করার জন্য একটা বাটন তৈরি এবং যোগ করা দেখাব। যে বাটনে ক্লিক করলে আপনার ব্লগটি ইংরেজীতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

বাটন তৈরির কাজ শুরু করা যাক। বাটন তৈরির জন্য প্রথমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম ব্লগের ড্যাসবোর্ডে যেতে হবে। ড্যাসবোর্ডের লিঙ্ক নিচের মতঃ

bloog address>/wp-admin যেমনঃ iwwintricks.wordpress.com/wp-admin (আপনারা এটি জানেন তারপরও দিলাম, কিছু মনে করবেন না :))

ড্যাসবোর্ডে গিয়ে বামপাশের Appearance ভাগ থেকে Widgets এ ক্লিক করুন।

এবার Widgets পেজ লোড হলে Available Widgets অংশ থেকে Image বাটনটি ক্লিক করে ড্র্যাগ করে Primary Widget Area তে ড্রাপ করুন।

এবার Image Widget এর ঘর গুলো নিচের মত পূরন করুন।

Image URL: https://iwwintricks.files.wordpress.com/2011/09/translate-into-english.png

Alternate text: Click Here to Translate this Blog into English language.

Image Alignment: Center

Link URL (when the image is clicked): http://translate.google.com/translate?hl=en&sl=bn&tl=en&u=http://<your blog address>/

যেমনঃ http://translate.google.com/translate?hl=en&sl=bn&tl=en&u=http://iwwintricks.wordpress.com/

সব পূরন করা হয়ে গেলে Save বাটনে ক্লিক করুন। এবার দেখুন আপনার ব্লগে Widget অংশে নিচের মত একটি বাটন এসেছে। এতে ক্লিক করলেই আপনার ব্লগের ট্রান্সলেট করার পেজ দেখা যাবে। নিচের বাটনটি চাপ দিয়ে ডেমো দেখতে পারেন 🙂

আজ এ পর্যন্তই। কোন সমস্যা হলে কমেন্টে বলবেন। সবাই ভাল থাকবেন।

ধন্যবাদ।

ফেসবুকে ব্লগের ফ্যান পেজ তৈরি করা

আমরা যারা ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত আছি তাদের অনেকেরই আমার মত ব্লগ লেখার শখ আছে এবং অনেকে লিখছেন। ব্লগের একটি প্রয়োজনীয় অংশ হল ব্লগের ফ্যান পেজ। এর মাধ্যমে আপনার ব্লগের ফ্যানরা নিয়মিত ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার ব্লগের আপডেট পেতে পারবে। এছাড়া ব্লগের ভিজিটর বাড়েতেও এটি অনেক গুরুত্ব রাখে। আজ দেখাব কিভাবে একটি ফ্যান পেজ তৈরি করা যায়। ফেসবুকে ফ্যান পেজ অনেকে তৈরি করলেও যে ঝামেলাতে পড়েন তা হল ব্লগের পোষ্ট সয়ংক্রিয় পেজের ওয়ালে পোষ্ট করার পদ্ধতি খুজে পান না। নিচে ফ্যান পেজ তৈরি বিস্তারিত বর্ননা দেয়া হল।

প্রথমে ফেসবুকে লগঅন করুন এবং নিচের লিঙ্কে প্রবেশ করুনঃ

https://www.facebook.com/pages/create.php

তাহলে নিচের মত একটি পেজ আসবে। সেখান থেকে Brand or Product বাক্সে ক্লিক করুন।

তারপর choose a category থেকে Website সিলেক্ট করে তার নিচের বক্সে আপনার ব্লগের নাম লিখুন ও চেক বক্সটি চেক করুন এবং Get Started বাটনে ক্লিক করুন।

এবার যে পেজ আসবে সেখান থেকে Upload an Image এ ক্লিক করে আপনার পেজের জন্য একটি পিকচার সিলেক্ট করে দিতে পারেন। তারপর Continue এ ক্লিক করুন।

তারপর আবার Continue বাটনে ক্লিক করুন।

এবার যে পেজ আসবে সেখানে Website বক্সে ব্লগের ঠিকানা এবং About বক্সে ব্লগ সম্পর্কে কিছু লিখে Continue বাটনে ক্লিক করুন।

এবার যে পেজ আসবে সেখানে থেকে Edit Page বাটনে ক্লিক করতে হবে।

তারপর যে পেজ আসবে সে পেজ থেকে Basic Information এ ক্লিক করে Category অংশে Websites & blogs সিলেক্ট করে পরের বক্সে আপনার ব্লগের বিষয় সিলেক্ট করে

Save Changes বাটনে ক্লিক করতে হবে। তারপর ব্লগের অন্য তথ্য গুলো নিজ দায়িত্বে দিন। কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।

এবার দেখা যাক কিভাবে সয়ংক্রিয় ব্লগের পোষ্ট পেজে পোষ্ট করা যায়।
এ কাজটি করার জন্য একটা ফেসবুক এপ্লিকেশন ব্যবহার করতে হবে। তার নাম RSS Graffite. এপ্লিকেশনটিতে সরাসরি যেতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুনঃ

http://apps.facebook.com/rssgraffiti/

তারপর যে পেজ আসবে সেখান থেকে Go to App বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর Authorization required অংশ থেকে Click HERE to authorize RSS Graffiti বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর যে পেজ আসবে সেখান থেকে Allow বাটনে ক্লিক করুন।

তাহলে আবার পুরনো পেজে ফিরে আসবে। সেখানে বাম পাশ থেকে Your Fan Pages অংশ থেকে আপনার পেজটিতে ক্লিক করুন। (আপনি ব্লগ পেজের সাথে আপনার নিজের Wall এ ব্লগের পোষ্ট গুলো সয়ংক্রিয় পোষ্ট করতে চাইলে নিচের কাজ গুলো সম্পন্ন করে আবার এ পেজে এসে Your Profile অংশ থেকে আপনার নাম সিলেক্ট করে নিচের কাজ গুলো আবার করতে হবে। এ পেজে আসার নিয়ম উপরে দেখানো হয়েছে।)

তারপর Add RSS Graffiti to this Fan Page অংশ থেকে Click Here to Add RSS Graffiti to this Fan Page বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর Add RSS Graffiti বাটনে ক্লিক করুন।

এবার Click to authorize বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর Allow বাটনে ক্লিক করুন।

এবার নিচের মত অংশ থেকে +Add feed বাটনে ক্লিক করুন।

এবার আপনার ব্লগের ফিড এর লিঙ্ক দিতে হবে। ফিড এর লিঙ্ক হল এরকম –
http://<আপনার ব্লগের ঠিকানা>/feed/’
যেমনঃ ‘https://iwwintricks.wordpress.com/feed/&#8217;
আশা করি আপনার ফিড লিঙ্কটি কেমন হবে তা বুঝতে পেরেছেন। আপনার ব্লগের ঠিকানার শেষে /feed/ যুক্ত করলেই তা ফিড লিঙ্ক হয়ে যাবে। এবার এই ফিড লিঙ্কটি Feed URL বক্সে লিখুন এবং Source Name বক্সে আপনার ব্লগের নাম লিখুন এবং Save বাটনে ক্লিক করুন।

এবার শেষ কাজ। Edit this Fan Page লেখাতে ক্লিক করুন।

তারপর Manage Permission এ ক্লিক করে Default Landing Tab থেকে Wall Paper সিলেক্ট করুন। এতে কেউ আপনার পেজে ঢুকলে সরাসরি আপনার ব্লগের পোষ্ট গুলোর একটি সয়ংক্রিয় সাজানো পেজ দেখতে পাবে।

এবার Save Changes বাটনে ক্লিক করুন।

ব্লগ পেজ তৈরি করা সম্পূর্ন শেষ। কাজটি সহজ তবে ধাপ বেশী। আশা করি সমস্যা হবে না। একবার কাজটি করলে পরের বার সহজ লাগবে। তারপরও সমস্যা হলে কমেন্টে বলবেন।
ধন্যবাদ।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) – টিউটোরিয়াল – ৬ – ব্লগের নাম, আইকন, ইমেইল, ভাষা ইত্যাদি পরিবর্তন করা এবং পেজ তৈরি করা

আজকের পোষ্টে দেখাব কিভাবে ব্লগের নাম, আইকন, ইমেইল, ভাষা ইত্যাদি পরিবর্তন করতে হয় এবং নতুন পেজ তৈরি এবং এডিট করতে হয়। তাহলে শুরু করা যাক।
ব্লগের নাম, আইকন, ভাষা ইত্যাদি পরিবর্তন করতে হলে প্রথমে আপনাকে ব্লগের ড্যাসবোর্ডে যেতে হবে। ড্যাসবোর্ডে যাওয়ার পর বামে নিচের দিকে থেকে Settings বিভাগের General অপশনে ক্লিক করুন।

তাহলে যে পেজ আসবে সেখানে অনেক গুলো বক্স দেখতে পাবেন। Site Title বক্সে ব্লগের টাইটেল (যেমনঃ এই ব্লগের টাইটেল IW windows tricks) দিতে হবে। Tagline বক্সে ব্লগের বিষয়ের উপর একলাইনের সংক্ষিপ্ত বর্ননা দিতে হবে। যাতে ভিজিটর তা দেখে আপনার ব্লগের বিষয় বস্তু সম্পর্কে ধারনা পায়। E-mail address বক্সে আপনার ইমেইল ঠিকানা লিখুন। এখানে যে ঠিকানা লিখবেন সে ঠিকানায় ব্লগে নতুন কমেন্ট এলে বা ব্লগের কেউ সাবক্রাইব হলে আপনাকে জানানো হবে। Timezone থেকে Dhaka সিলেক্ট করুন। Data Format থেকে পোষ্ট তারিখ কিভাবে দেখাবে তা দেখিয়ে দিন। Time Format থেকে সময় পোষ্টে কিভাবে দেখানো হবে তা দেখিয়ে দিন। Week Starts On থেকে Saturday সিলেক্ট করে দিন। এ বক্সে সপ্তাহের শুরু হয় কোন দিন থেকে তা দেখিয়ে দিতে হয়। আমরা তাই Saturday দেখিয়ে দিব। Language থেকে ব্লগের ভাষা ঠিক করে দিন। আপনার ব্লগটি যদি বাংলাতে হয় তাহলে “bn – বাংলা” সিলেক্ট করে দিন।

পেজের ডানদিকে Blog Picture / Icon নামে একটি অংশ আছে এখানে আপনার ব্লগের জন্য একটি আইকন সিলেক্ট করে দিতে পারেন। এই আইকন আপনার ব্রাইজারের এ্যাড্রেস বারের পাশে দেখা যাবে। আইকন যোগ করার জন্য ব্রাউজ বা Browse বাটনে ক্লিক করে একটি jpeg বা png পিকচার ফাইল দেখিয়ে দিন। তারপর Upload Image বাটনে ক্লিক করে পিকচার আপলোড করুন। আপলোড হলে আপনাকে পিকচারটির Crop করার অপশন দেবে। আপলোড করা পিকচারের কোন অংশ বা কতটুকু আইকন হিসেবে ব্যবহার করা হবে তা সেখানে দেখিয়ে দেয়া যাবে।
সব কাজ শেষে Save Changes এ ক্লিক করুন। তাহলে আপনার দেয়া সেটিং গুলো সেভ হবে। সব সেটিং সাথে সাথে চালু হলেও ব্লগের আইকন সাথে সাথে দেখা যাবে না। আইকন অ্যাকটিভ হতে কিছু সময় নিবে।

এবার দেখা যাক কিভাবে পেজ তৈরি করা যায়। পেজ তৈরির জন্য প্রথমে ব্লগের ড্যাসবোর্ডে গিয়ে বামে Pages অংশ থেকে Pages অপশনে ক্লিক করুন।

তাহলে যে পেজ আসবে সেখান আপনার সব পেজের নাম দেখাবে। এখন নতুন পেজ যোগ করতে চাইলে Add New বাটনে ক্লিক করুন।

আর আপনি যদি পুরনো পেজ সম্পাদনা (Edit) করতে চান তাহলে সে পেজের নামের উপর মাউস পয়েন্টার রাখতে হবে, তাহলে কিছু অপশন আসবে। সেগুলো থেকে Edit লেখাতে ক্লিক করতে হবে।

Add New বা Edit বাটনে ক্লিক করলে যে পেজ আসবে তা এবং নতুন পোষ্ট করার পেজের মত। তাই আমি আর সেগুলো নিয়ে লিখছি না। পোষ্ট করার বিস্তারিত নিয়ম এখান থেকে দেখে আসতে পারেন। এ পেজে একটা অতিরিক্ত যে অপশন আছে। সেটার কাজ নিচে দিলাম।
অতিরিক্ত অপশনটার নাম Page Attributes. এতে তিনটি অপশন আছে। Parent, Template এবং Order । Template অপশন তেমন গুরুত্বপূর্ন না।
ব্লগে সাধারনত পেজ গুলো মেনু আকারে দেখায়। অনেক সাইটে দেখা যায় এসব মেনুতে মাউস পয়েন্টার নিয়ে গেলে সাব মেনু দেখা যায়, যেগুলোতে ক্লিক করলে এর সাব পেজ গুলো চালু হয়। যেমন নিচের চিত্রে Blog Info যদি একটি পেজ হয় তাহলে, এর সাব পেজ হচ্ছে Random Post, Get Shortlink ইত্যাদি।

এধরনের সাব মেনু অর্থাৎ সাব পেজ Parent অপশনের মাধ্যমে তৈরি করা যায়। Parent থেকে আপনি নতুন পেজটি যে পেজের সাব পেজ হিসেবে তৈরি করতে চান সে পেজটি সিলেক্ট করে দিন। আর যদি (no parent) দেখিয়ে দেন তাহলে এটি একটি সতন্ত্র পেজ হবে।
আপনার ব্লগে যদি একের অধিক পেজ থাকে তাহলে Order অপশনের মাধ্যমে আপনার নতুন পেজটি কত নাম্বারে অর্থাৎ কয়টা পেজের পর দেখাবে তা সিলেক্ট করে দিতে পারেন। এর মান শূন্য রাখলেও অসুবিধা নেই।

আজকের মত এতটুকু। আমরা প্রায় ওয়ার্ডপ্রেস.কম এর প্রধান কাজ গুলোর শেষ পর্যায়ে চলে এসেছি। আশা করি আর এক থেকে দুটি পোষ্টের ভিতরে ওয়ার্ডপ্রেস.কম এর সম্পূর্ন টিউটোরিয়াল সর্ম্পূন হয়ে যাবে। কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করতে পারেন।
ধন্যবাদ।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম টিউটোরিয়ালটি মোট ৯টি পোষ্ট এর সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে। আপনাদের সুবিধার্থে টিউটোরিয়ালের সব পেজের লিঙ্ক নিচে দেয়া হলঃ

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড (MS Word) থেকে সরাসরি ব্লগে নতুন পোষ্ট করা

আমরা সাধারণত পোষ্ট করার জন্য নেট ব্রাউজারের সাহায্যে ব্লগের সাইটে গিয়ে নতুন পোষ্ট করি। পোষ্টে বেশী ছবি থাকলে দেখা যায় সেগুলো আপলোড করতে কষ্ট করতে হয়। এছাড়া সেসব পোষ্ট নিজের কম্পিউটারে সেভ করে রাখতে হলে আবার কপি পেষ্ট করতে হয়। অনেকে ওয়ার্ডে পোষ্ট লিখে তারপর কপি পেস্ট করে ব্লগে পোষ্ট করে। এসব ঝামেলা না করে যদি মাইক্রোসফট ওয়ার্ড থেকেই নতুন পোস্ট করা যায় তাহলে কেমন হয়। আজ আমি তাই দেখাব। এ সুবিধাটি মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ২০০৭ এ যোগ করা হয়েছে। আমি কথা বেশী না বলে কাজে চলে যাই। মাইক্রোসফট ওয়ার্ড থেকে সরাসরি ব্লগে পোষ্ট করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

প্রথমে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ২০০৭ চালু করুন। আমি ওয়ার্ড ২০০৭ এর নিয়ম দেখাচ্ছি, এর পরের ভার্সন গুলোতেও আশা করি এ রকম করে ওয়ার্ড থেকে পোষ্ট করা যাবে। এবার বামে কোনা থেকে Office Button এ ক্লিক করুন। সেখান থেকে New এ ক্লিক করুন।

এবার Blank and recent এ ক্লিক করে New blog post এ ক্লিক করুন। তারপর Create বাটনে ক্লিক করুন।

=> =>
তাহলে নিচের মত একটি উইন্ডো আসবে। সেখান থেকে Register Now এ ক্লিক করুন।

তাহলে New Blog Account নামে একটি উইন্ডো আসবে। সেখানে Blog লেখার পাশের বক্সটি থেকে আপনি কোন ব্লগ ব্যবহার করেন তা সিলেক্ট করে দিন (যেমনঃ blogger, TypePad, WordPress ইত্যাদি)। এবার Next এ ক্লিক করুন।


তাহলে নিচের উইন্ডোটি আসবে। এ উইন্ডোর Blog Post URL বক্সের <Enter your URL here> এর জায়গাতে আপনার ব্লগের নাম দিন (যেমনঃ https://iwwintricks.wordpress.com/xmlrpc.php )। তারপর User Name বক্সে ইউজার নেম এবং Password বক্সে পাসওয়ার্ড দিন। তারপর আপনার ইউজার নেম পাসওয়ার্ড ওয়ার্ডকে মনে রাখতে Remember চেক বক্সে টিক দিন। Picture Option বাটনে ক্লিক করে আপনি পোষ্টের ছবি গুলো আপলোড করবেন কিনা তা বলে দিতে পারবেন। ডিফল্ট হিসেবে আপলোড করার অনুমতি দেয়া থাকে। তাই এটি আর চেঞ্জ করতে হয় না। এবার OK তে ক্লিক করে নতুন যে উইন্ডো আসবে সেখান থেকে Continue এ ক্লিক করলে আপনার ব্লগটি ওয়ার্ড যোগ করবে অর্থাৎ এখন ওয়ার্ডে পোষ্ট লিখে আপনি তা ওয়ার্ড থেকেই পোষ্ট করতে পারবেন। নিচে তার পরের কাজ গুলো দেখানো হল।


OK দেয়ার পর নিচের মত পেজ আসবে। এখানে আপনার পোষ্টটি লিখতে হবে। এখনের [Enter Post Title Here] লেখাতে ক্লিক করে সেখানে পোষ্টের টাইটেল লিখতে হবে। তারপর একটি লম্বা দাগ দেখা যাচ্ছে, এর নিজ থেকে আপনার পোষ্ট লেখা শুরু করতে হবে। ওয়ার্ডের কাজ মোটামুটি সবার জানা আছে তাই সেগুলো আর দেখালাম না। তবে কোন সমস্যায় পড়লে তা কমেন্টে বলবেন।


পোষ্টের ক্যাটাগরি সিলেক্ট করার জন্য উপরের মেনুর Blog Post ট্যাব থেকে Insert Category তে ক্লিক করুন।


তাহলে ওয়ার্ড আপনার ব্লগ থেকে ক্যাটাগরি গুলো লোড করবে এবং টাইটেলের পরে নিচের মত Category নামে একটি বক্স আসবে। সেখান থেকে আপনি আপনার পোষ্টটির ক্যাটাগরি সিলেক্ট করে দিতে পারবেন।


পোষ্ট পাবলিশ করার জন্য উপরের মেনু থেকে Blog Post ট্যাব থেকে Publish লেখাতে ক্লিক করে Publish এ ক্লিক করতে হবে। আর যদি আপনি পোষ্টটি ড্রাফটে রাখতে চান তাহলে উপরের মেনু থেকে Blog Post ট্যাব থেকে Publish লেখাতে ক্লিক করে Publish as Draft লেখাতে ক্লিক করতে হবে।


পোষ্ট পাবলিশ হলে পোষ্টের উপরে নিচের মত লেখাটি দেখাবে।


আপনি চাইলে এখন আপনার পোষ্টটি কম্পিউটারে সেভ করেও রাখতে পারবেন।

এই পোষ্টটি আমি সরাসরি ওয়ার্ড থেকেই পাবলিশ করেছি। আমি মোটামুটি বিস্তারিত দেখানোর চেষ্টা করেছি। তবে কোন সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্টে বলবেন। ভাল লাগলে কমেন্ট করবেন।

ওয়েব মাস্টার টুল (Webmaster Tool) দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) এ তৈরি করা ব্লগ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ (SEO) করা

সেলফ হোস্টেড অর্থাৎ নিজস্ব ওয়েব সাইট থাকলে বিভিন্ন প্লাগইন ব্যবহার করে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ করা যায়। কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি করা ব্লগে কোন প্লাগইন যোগ করার সুবিধা না থাকায় নিজ থেকে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) করা যায় না। তবে SEO করার প্রধান শর্ত হল ব্লগ বা সাইটের মান ভাল হতে হবে। নিয়মিত আপডেট রাখার চেষ্টা করতে হবে। কপি-পেস্ট অর্থাৎ কারও জিনিস হুবহু নকল করা যাবে না। সার্চ ইঞ্জিনের কাছে সব সাইটের কপি আছে, তাই আপনি কপি-পেস্ট করে সবাইকে বোকা বানাতে পারলেও সার্চ ইঞ্জিনকে বোকা বানাতে পারবেন না। এগুলো ছাড়াও ওয়েব মাস্টার টুল দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি ব্লগ SEO করা যায়। প্রধানত গুগল, ইয়াহু এবং বিং সার্চ ইঞ্জিন ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহারের সুযোগ দিচ্ছে। ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহার করলে আপনার ব্লগে নতুন পোষ্ট করলে তা সাথে সাথে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে চলে যাবে। এছাড়াও আপনার ব্লগ সম্পর্কে সব ধরনের তথ্য সার্চ ইঞ্জিনের কাছে চলে যাবে। এতে আপনার সাইটটি ভাল না খারাপ তা সার্চ ইঞ্জিন কাছ থেকে পর্যবেক্ষন করবে। আপনার সাইট যদি মানসম্মত হয় তাহলে অবশ্যই আপনার ব্লগ SEO হবে। ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহারের জন্য প্রথমে আপনার ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে পরিচিত বা Verify করে দিতে হবে। নিচে গুগল, ইয়াহু এবং বিং এর কাছে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি করা ব্লগ সাইট পরিচিত করার পদ্ধতি দেয়া হল।

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি ব্লগ ওয়েব মাস্টার টুল দিয়ে SEO করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

গুগল ওয়েব মাস্টার টুলস (Google Webmaster Tools)

১. প্রথমে https://www.google.com/webmasters/tools/ এ গিয়ে আপনার গুগল একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার গুগল একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে Add Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখন আপনার সাইট গুগলে কাছে পরিচিত করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি দেয়া হবে। সেখান থেকে Mete Tag যেটিতে লেখা আছে সেটি সিলেক্ট করুন।

৪. এখন আপনাকে নিচের মত একটি কোড দেয়া হবে। তা সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='google-site-verification' content='dBw5CvburAxi537Rp9qi5uG2174Vb6JwHwIRwPSLIK8'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাশবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Google Webmaster Tools লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটিতে ফিরে গিয়ে Verify এ ক্লিক করুন।

ইয়াহু সাইট এক্সপ্লোরার (Yahoo Site Explorer)

১. প্রথমে https://siteexplorer.search.yahoo.com/ এ গিয়ে আপনার ইয়াহু একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার ইয়াহু একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে My Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখন আপনার সাইট ইয়াহুর কাছে পরিচিত করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি দেয়া হবে। সেখান থেকে META Tag যেটিতে লেখা আছে সেটি সিলেক্ট করুন।

৪. এখন আপনাকে নিচের মত একটি কোড দেয়া হবে। তা সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='y_key' content='3236dee82aabe064'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাসবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Yahoo! Site Explorer লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটিতে ফিরে গিয়ে Ready to Authenticate এ ক্লিক করুন।

Note: It may take up to 24 hours for your site to be authenticated.

বিঃদ্রঃ ইয়াহুতে অথেনটিকেট হতে সর্বোচ্চ ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

বিং ওয়েব মাস্টার সেন্টার (Bing Webmaster Center)

১. প্রথমে http://www.bing.com/webmaster এ গিয়ে আপনার লাইভ (Live!) একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার লাইভ একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখন Add a Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে Submit এ ক্লিক করুন।

৪. এখন আপনাকে কিছু কোড দেয়া হবে। সেখান থেকে Mate Tag কোডটি খুজে বের করুন। এটি দেখাতে নিচের মত। এবার কোডটি সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='msvalidate.01' content='12C1203B5086AECE94EB3A3D9830B2E'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাশবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Bing Webmaster Center লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটি তে ফিরে গিয়ে Return to the Site List এ ক্লিক করুন।

উপরের কাজ গুলো করার সময় বর্ণনার সাথে বাস্তবের কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। আশা করি কোন সমস্যা হবে না। আর কোন সমস্যা হলে আমি তো আছিই। ভাল লাগলে বা কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।