অ্যাড দিস (Add This) – একটি অ্যাড-অন দিয়েই যে কোন পেজ যে কোন শেয়ারিং সাইটে শেয়ার করুন + ব্লগ বা যে কোন সাইটে দেয়ার জন্য শেয়ার বাটন

নেটে যখন কোন জিনিস ভাল লাগে তখন তা বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ইচ্ছে করে। তবে দেখা যায় অনেক সময় বিভিন্ন সাইটে বা সব পেজে শেয়ার করার অপশন থাকে না। আবার আপনি যেখানে শেয়ার করতে চান হয়তো সে ফাংশনটি সেখানে দেয়া নেই। তখন হয়তো আপনাকে লিঙ্কটি কপি পেস্ট করে আপনাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে হয়। আজ একটি সুন্দর অ্যাড-অন দেব যা ৩০০ এর উপরে শেয়ারিং সাইট সাপোর্ট করে। এর নাম অ্যাডদিস (Add This)। এটি এখানে থেকে ডাউনলোড করতে পারেন। কোন পেজ বা সাইট আপনি শেয়ার করতে চাইলে অ্যাডদিস অ্যাড-অনটি চালু অবস্থায় শুধু ঐ পেজের উপর রাইট ক্লিক করে AddThis থেকে আপনি কোথায় শেয়ার করতে চান সেটিতে ক্লিক করুন। এতে ডিফল্ট হিসেবে সেসব সাইট থাকে তা আপনি Tools > AddThis > Options এ গিয়ে কমবেশী করতে পারবেন। অ্যাড-অনটি ডাউনলোড করলে সব শেয়ারিং সাইটের নাম জানতে পারবেন। এতে কিছু জ্ঞান আহরণ হবে।

আপনার সাইটে বা ব্লগে অ্যাডদিস এর শেয়ার বাটনও আপনি চাইলে যোগ করতে পারেন। এর জন্য কোন টাকা বা রেজিষ্ট্রেশনের প্রয়োজন নেই। শুধু অ্যাডদিস এর ওয়েব সাইটে গিয়ে আপনার ইচ্ছে মত বাটন তৈরি করে নিতে পারবেন। অ্যাডদিস এর ঠিকানা www.addthis.com । অ্যাডদিস এর শেয়ার বাটন ব্লগার, ওয়ার্ডপ্রেস (.কম ও .অর্গ) সহ যেকোন সাইটে যোগ। করতে পারেন। শেয়ার বাটন যোগ করতে কোন সমস্যা হলে কমেন্টে বলবেন। আশা করি অ্যাড-অনটি কাজে লাগবে। ভাল লাগলে কমেন্ট করবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) – টিউটোরিয়াল – ২ – ব্লগার থেকে ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ স্থানান্তর করা

ওয়ার্ডপ্রেস.কম টিউটোরিয়ালে আজকে স্বাগতম। কথা না বাড়িয়ে আজকে পোষ্ট শুরু করি। আপনার যদি আগে ব্লগারে কোন ব্লগ থাকে তা আপনি ওয়ার্ডপ্রেসে স্থানান্তরিত করতে পারেন সহজ কয়েকটি ধাপের মাধ্যমে। ধাপ গুলো নিচে দেয়া হল।

প্রথমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগের ড্যাশবোর্ডে গিয়ে বামে নিচের দিকে Tools থেকে Import এ ক্লিক করতে হবে।

তারপর যে পেজ আসবে সেখান থেকে Blogger এ ক্লিক করুন।
এবার ব্লগারে লগইন করতে হবে। তারপর একটি পেজ আসবে সেখানে নিচের মত দুটি বাটন দেখতে পাবেন। সেখান থেকে Grant access এ ক্লিক করুন।
তাহলে নিচের মত একটি পেজ আসবে। সেখান থেকে আপনার ব্লগের নামের পাশে Import নামে যে বাটন দেখতে পাবেন তাতে ক্লিক করলেই ওয়ার্ডপ্রেস আপনার আগের ব্লগ থেকে সব পোষ্ট এবং কমেন্ট ওয়ার্ডপ্রেসে স্থানান্তরিত করবে।

এ পদ্ধতি ছাড়াও আরো অনেক ভাবে ব্লগ স্থানান্তরিত করা যায়। তবে এটি সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। আজ এ পর্যন্তই। ভালো লাগলে কমেন্ট করবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম টিউটোরিয়ালটি মোট ৯টি পোষ্ট এর সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে। আপনাদের সুবিধার্থে টিউটোরিয়ালের সব পেজের লিঙ্ক নিচে দেয়া হলঃ

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) – টিউটোরিয়াল – ১ – ব্লগার VS ওয়ার্ডপ্রেস এবং ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ তৈরি করা

ফ্রি ব্লগ তৈরির জন্য যত সাইট আছে তাদের মধ্যে ব্লগার ও ওয়ার্ডপ্রেস জনপ্রিয়তার শীর্ষে আছে। তবে বেশীর ভাগ ব্যবহারকারী ব্লগারে ব্লগ তৈরি করে। এটা সত্য যে ব্লগার ব্যবহার করা ওয়ার্ডপ্রেস এর তুলনায় অনেক সহজ। এছাড়া ব্লগারে ব্লগ তৈরি করলে অনেক সুবিধা পাওয়া। ওয়ার্ডপ্রেসের তুলনায় প্রধানত যে সব সুবিধা বেশী আছে সেগুলো হল- ব্লগারে ইচ্ছে মত অ্যাড-অন যোগ করা যায়, ব্লগারে ফ্ল্যাস কনটেন্ট যোগ করা যায়, ব্লগারে নতুন টেমপ্লেট বা থিম যোগ করা যায় ইত্যাদি। এগুলো ওয়ার্ডপ্রেসে যায় না। তবে ব্লগের জন্য যত সুবিধা দরকার তার সবই ওয়ার্ডপ্রেসে আছে। ওয়ার্ডপ্রেসের নিজস্ব ১০০ এর বেশী আকর্ষনীয় থিম আছে, যেখান থেকে ইচ্ছে মত থিম ব্যবহার করা যায়। এছাড়া ওয়ার্ডপ্রেসে ক্যাটাগরি বা বিভাগ তৈরি করা যায়, যা ব্লগারে যায় না। এছাড়া ব্লগের জন্য ব্লগার দেয় ১ গিগাবাইট আর ওয়ার্ডপ্রেস দেয় ৩ গিগাবাইট যায়গা। এছাড়া আরো চমৎকার কিছু সুবিধা ওয়ার্ডপ্রেসে আছে। আমার মতে ব্লগ তৈরি করলে ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি করা উত্তম। কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করা নতুন দের জন্য একটু কঠিন। তাই আমি ধারাবাহিক ভাবে ওয়ার্ডপ্রেসের সম্পূর্ন ব্যবহার শেখানোর চেষ্টা করব। আজ ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ তৈরি করার পদ্ধতি দেখাব।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ নতুন ব্লগ তৈরি করা
ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ তৈরি করতে প্রথমে এখানে ক্লিক করুন। এবার যে যে পেজটি আসবে সেখানে Blog Address বক্সে ব্লগের নাম, Username বক্সে ইউজার নেম, Password ও Confirm বক্সে পাসওয়ার্ড এবং E-mail Address বক্সে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে Sign up বাটনে ক্লিক করুন।

তাহলেই আপনার ব্লগ তৈরি হয়ে যাবে। ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগের নিয়ন্ত্রন করতে হয় ড্যাশবোর্ড থেকে। ড্যাশবোর্ড (Dashboard) হল আপনার ব্লগের কন্ট্রোল প্যানেল। এখানে থেকে ব্লগের যাবতীয় কাজ (যেমন নতুন পোষ্ট করা, থিম পরিবর্তন, উইজেট পরিবর্তন করা ইত্যাদি) করতে হয়। ব্লগের ড্যাশবোর্ডে যেতে ব্রাউজারের অ্যাড্রেস বারে আপনার ব্লগের নাম এর সাথে /wp-admin যোগ করে ইন্টার দিন। যেমনঃ iwwintricks.wordpress.com/wp-admin )। আশা করি কোন সমস্যা হবে না। সমস্যা। হলে কমেন্ট করবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস.কম টিউটোরিয়ালটি মোট ৯টি পোষ্ট এর সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে। আপনাদের সুবিধার্থে টিউটোরিয়ালের সব পেজের লিঙ্ক নিচে দেয়া হলঃ

ব্লগার হ্যাকিং : অন্য কোন সাইটে সয়ংক্রিয় নিয়ে যাওয়া

অনেক সময় বিভিন্ন কারনে ব্লগের নাম পরিবর্তন করতে হয় বা অন্য কোন ব্লগ চালু করতে হয়, তখন আপনার পুরনো ব্লগটি মুছে দিলে ব্লগটির পাঠকরা আপনার ব্লগ আর খুজে পায় না এবং পাঠক গুলোকে হারাতে হবে। আপনি চাইলে আপনার পুরনো ব্লগ থেকে পাঠকদের সয়ংক্রিয় আপনার নতুন ব্লগে বা সাইটে নিয়ে যেতে পারেন। এর জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসরন করুন।

প্রথমে ব্লগারে গিয়ে লগঅন করুন। তারপর Design ট্যাব থেকে Edit HTML এ ক্লিক করুন।
তারপর কী-বোর্ড থেকে F3 চাপ দিন। তাহলে সার্চ উইন্ডো আসবে। সেখান <head> লিখে শব্দটি বের করুন।

ফায়ারফক্সের সার্চ বার

শব্দটি খুজে পেলে শব্দটির নিচে নিচের কোডটি দিন এবং কোডটির “www.example.com” এর জায়গাতে আপনার নতুন সাইটের ঠিকানা দিন।

<meta content=’0;url=http://www.example.com’ http-equiv=’refresh’/>

কোডটি দেয়ার পর কোড গুলো দেখতে নিচে মত হবে।

তারপর SAVE TEMPLATE এ ক্লিক করুন।উদাহরন হিসেবে নিচের সাইটে ক্লিক করে দেখতে পারেন।

usefultricksforwindows.blogspot.com

কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।

ব্লগার হ্যাকিং: ব্লগারের নেভিগেট বার লুকানো

ব্লগারে ব্লগ তৈরি করলে ব্লগ সাইটের উপরে একটি বার দেখা যায়। এটি নেভিগেট বার। সাধারনত Template Designer থেকে টেমপ্লেট ডিজাইন করলে এ বার দেখা য়ায়। তবে নিজ থেকে টেমপ্লেট ডাউনলোড করে দিলে এটি দেখা যায় না।

নেভিগেট বার

অনেক ইউজার এ বারটি পছন্দ করেন না। কিন্তু ব্লগারে এটি লুকানোর কোন অপশন দেয়নি। আপনি চাইলে নিচের পদ্ধতিতে নেভিগেট বারটি লুকাতে পারেন।

প্রথমে ব্লগারে গিয়ে লগঅন করুন। তারপর Design ট্যাব থেকে Edit HTML এ ক্লিক করুন।

তারপর কী-বোর্ড থেকে F3 চাপ দিন। তাহলে সার্চ উইন্ডো আসবে। সেখান “body {” লিখে শব্দটি বের করুন।


শব্দটি খুজে পেলে শব্দটির উপরে নিচের যে কোন একটি কোড দিন এবং SAVE TEMPLATE এ ক্লিক করুন। ১ নং কোডটি আগে দিন। সেটি কাজ না করলে ২ নং কোডটি দিন। সেটিও কাজ না করলে ৩ নং কোডটি দিন।
১. #navbar-iframe {
height:0px;
visibility:hidden;
display:none;
}

২. div.navbar {
opacity:0.0;
display:none;
}

৩. #navbar-iframe { display: none !important; }

উদাহরন সরুপ নিচের চিত্রটি দেখুন।

আশা করি কোন সমস্য হবে না। সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।