লিংক

তথ্য বিজ্ঞানীদের খুঁজছে সারা পৃথিবী! আপনি প্রস্তুত তো?

টেকমাস্টার ব্লগে আমার প্রকাশনাঃ

তথ্য বিজ্ঞানী কারা? বিগ-ডেটা কি? ডেটা মাইনিং কি? বিগ-ডেটার ভবিষ্যৎ? বাংলাদেশ প্রেক্ষিতে এর ব্যবহার? এগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে এ প্রকাশনায়।

http://techmasterblog.com/25785/sience-tech

লিংক

মোদীর গুগল টেরোরিস্ট তালিকা কেলেঙ্কারি রহস্য

টেকমাস্টার ব্লগে আমার প্রকাশনাঃ

আপনি জানেন কি গুগলের আদোও কোনো সন্ত্রাসী/ক্রিমিনাল/টেরোরিস্ট তালিকা নেই! তাহলে কিসের জন্য বলা হচ্ছে মোদীকে গুগলে সন্ত্রাসী তালিকায় দেখা যাচ্ছে? চলুন জানা যাক…

http://techmasterblog.com/25743/report

ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) ব্লগে গুগল ট্রান্সলেট (Google Translate) বাটন যুক্ত করার সহজ নিয়ম (শুধু বাংলা থেকে ইংরেজী)

গুগল ট্রান্সলেটর নিয়ে এর আগের পোষ্টে লিখে ছিলাম। পোষ্টটি এখান থেকে দেখে আসতে পারেন। আজ দেখাব কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) ব্লগে গুগল ট্রান্সলেটর বাটন যুক্ত করার যায়। আমি শুধু বাংলা থেকে ইংলিশ ট্রান্সলেট করার জন্য একটা বাটন তৈরি এবং যোগ করা দেখাব। যে বাটনে ক্লিক করলে আপনার ব্লগটি ইংরেজীতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে।

বাটন তৈরির কাজ শুরু করা যাক। বাটন তৈরির জন্য প্রথমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম ব্লগের ড্যাসবোর্ডে যেতে হবে। ড্যাসবোর্ডের লিঙ্ক নিচের মতঃ

bloog address>/wp-admin যেমনঃ iwwintricks.wordpress.com/wp-admin (আপনারা এটি জানেন তারপরও দিলাম, কিছু মনে করবেন না :))

ড্যাসবোর্ডে গিয়ে বামপাশের Appearance ভাগ থেকে Widgets এ ক্লিক করুন।

এবার Widgets পেজ লোড হলে Available Widgets অংশ থেকে Image বাটনটি ক্লিক করে ড্র্যাগ করে Primary Widget Area তে ড্রাপ করুন।

এবার Image Widget এর ঘর গুলো নিচের মত পূরন করুন।

Image URL: https://iwwintricks.files.wordpress.com/2011/09/translate-into-english.png

Alternate text: Click Here to Translate this Blog into English language.

Image Alignment: Center

Link URL (when the image is clicked): http://translate.google.com/translate?hl=en&sl=bn&tl=en&u=http://<your blog address>/

যেমনঃ http://translate.google.com/translate?hl=en&sl=bn&tl=en&u=http://iwwintricks.wordpress.com/

সব পূরন করা হয়ে গেলে Save বাটনে ক্লিক করুন। এবার দেখুন আপনার ব্লগে Widget অংশে নিচের মত একটি বাটন এসেছে। এতে ক্লিক করলেই আপনার ব্লগের ট্রান্সলেট করার পেজ দেখা যাবে। নিচের বাটনটি চাপ দিয়ে ডেমো দেখতে পারেন 🙂

আজ এ পর্যন্তই। কোন সমস্যা হলে কমেন্টে বলবেন। সবাই ভাল থাকবেন।

ধন্যবাদ।

গুগল ট্রান্সলেট (Google Translate) কি এবং এর ব্যবহার

গুগল ট্রান্সলেট হচ্ছে গুগলের একটা অনলাইন সার্ভিস, যা দিয়ে এক ভাষার লেখাকে অন্য ভাষায় ভাষান্তরিত করা হয়। একে অনুবাদ বলা যায় না, কারন এটি এক ভাষার কোন বাক্য কে অন্য ভাষায় সম্পূর্ন রূপে অনুবাদ করতে পারে না। এটি শুধু এক ভাষার বাক্যের প্রত্যেক শব্দকে অনুবাদ করে এর নিজের আয়ত্বে থাকা কিছু বাক্যের সাথে মিলিয়ে আপনাকে একটা করে বাক্য সাজিয়ে দেয়। এই বাক্যটি কোন গ্রামাটিকাল রুলে সাজানো থাকবে না, তবে আপনি মোটামুটি বুঝতে পারবেন যে আসলে ঐ বাক্যে কি বলা হচ্ছে। এটি প্রথম ভাষাকে শব্দান্তর করে এর বিশাল শব্দ ভান্ডার থেকে এবং বাক্য সাজায় এর সংগ্রহে থাকা উদাহরন থেকে। যে কোন বাক্যকে ভাষান্তরিত করার সময় এর নিজের সংগ্রহে থাকা উদাহরনের যে বাক্যের সাথে ঐ বাক্যটি মোটামুটি মিলে যায় তার আকারে এটি ট্রান্সলেট করা বাক্যটিকে সাজিয়ে দেয়। এ জন্য এতে কমন বাক্য গুলোর সঠিক ভাষান্তর পাওয়া গেলেও, একটু জটিল হলেই এটি সঠিক ভাবে ট্রান্সলেট করতে পারে না। তবে এটি মোটামুটি কাজ চালিয়ে যাবার মত ভাষান্তরিত করতে পারে। এটি ২০০৬ এর দিকে চালু হলেও এতে বাংলা ভাষা যুক্ত হয়েছে এই বছরে। তবে উইকিপিডিয়ার তথ্য মতে এটি ইন্ডিয়ান বাংলা হিসেবেই চালু হয়েছে। এটি বর্তমানে ৬০+ ভাষা সাপোর্ট করে। এর উন্নয়ন কাজ এখনো চলছে। আরো বিস্তারিত জানতে এখানে দেখতে পারেন। আশা করি গুগল ট্রান্সলেট সম্পর্কে মোটামুটি ধারনা হয়েছে। এখন এটির ব্যবহার বিধি দেখা যাক।

ব্যবহার বিধিঃ

এর ব্যবহার বিধি পানির মত সহজ। তারপরও দেখিয়ে দিচ্ছি 🙂 প্রথমে গুগল ট্রান্সলেটর চালু করুন।
গুগল ট্রান্সলেটর এর ঠিকানা – translate.google.com
তাহলে নিচের মত একটি পেজ দেখতে পাবেন।

ক্রমিক নং অনুযায়ী মিলিয়ে পড়ুনঃ
1. এখানে আপনি কোন ভাষা থেকে ট্রান্সলেট করবেন তা দেখিয়ে দিন। এটি না দেখিয়ে দিলেও হয়। কারন আপনি লেখা ইনপুট দিলে এটি সংক্রিয় সে ভাষা সিলেক্ট করে নেয়।
2. এখানে আপনি কোন ভাষায় ট্রান্সলেট করবেন তা দেখিয়ে দিন। যেমনঃ বাংলার জন্য Bengali.
3. এখানে ক্লিক করলে আপনার দেয়া লেখা ট্রান্সলেট হবে এবং তা ৫নং বাক্সে দেখাবে।
4. এখানে যে বাক্যটি বা প্যারাটি ট্রান্সলেট করতে হবে তা লিখুন।
5. এখানে ট্রান্সলেট করা লেখা দেখা যাবে।

সুবিধা সমূহঃ

১. গুগল ট্রান্সলেট এ কোন শব্দের আল্টারনেট শব্দ অর্থাৎ একই ধরনের শব্দ দেখার সুবিধা আছে। এ জন্য ট্রান্সলেট হওয়া অংশে অর্থাৎ ৫নং অংশে ফলাফলের উপর মাউস পয়েন্টার রেখে বাম বাটন চাপলেই অল্টারনেট শব্দ গুলো দেখা যাবে এবং ঐ শব্দটি আদি ভাষার কোন শব্দের অর্থ তাও দেখাবে। যেমনঃ

২. উপরের চিত্রে একটা কালো বাক্সে দেখতে পাচ্ছেন, এতে ক্লিক করে আপনি ইংলিশ বাক্যটির উচ্চারনও শুনতে পারবেন :)।

৩. গুগল ট্রান্সলেট এর বড় সুবিধা হল এটি শুধু বাক্য বা প্যারা ট্রান্সলেট করতে পারে না, এটি সম্পূর্ন ওয়েব সাইটও ট্রান্সলেট করতে পারে। কোন সাইটকে ট্রান্সলেট করতে চাইলে ৪নং বাক্সে সে সাইটের ঠিকানাটি লিখুন এবং একটু অপেক্ষা করুন বা ৩নং বাটনটি অর্থাৎ Translate বাটনটি ক্লিক করুন। তাহলে দেখবেন ৫নং বক্সে একটি লিঙ্ক এসেছে, এতে ক্লিক করলেই আপনি ঐ সাইটের সম্পূর্ন ট্রান্সলেট দেখতে পাবেন।

৪. ফায়ারফক্সে গুগল ট্রান্সলেটরের জন্য একটি অ্যাড-অনও আছে। এর ঠিকানা – addons.mozilla.org/en-US/firefox/addon/google-translator-for-firefox/
এটি ইনস্টল করে এর Option থেকে বাংলা বা আপনি যে ভাষা চান তা সিলেক্ট করে দিন। তারপর ওয়েব সাইটের যে কোন লাইন সিলেক্ট করে রাইট ক্লিক করে ‘Translate selection with Google Translate’ এ ক্লিক করলেই ঐ সিলেক্ট করা বাক্যটির ট্রান্সলেট দেখতে পাবেন।

এগুলোই এর প্রধান সুবিধা। আমি গুগল ট্রান্সলেট সম্পর্কে যা জানি তাই আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। আমি মানুষ, তাই আমার ভুল হতেই পারে। তাই পোষ্টে কোন ভুল হলে তা কমেন্টে বলবেন। আজ এ পর্যন্তই। কোন সমস্যা হলে কমেন্টে বলবেন।
ধন্যবাদ।

ওয়েব মাস্টার টুল (Webmaster Tool) দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস.কম (WordPress.com) এ তৈরি করা ব্লগ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ (SEO) করা

সেলফ হোস্টেড অর্থাৎ নিজস্ব ওয়েব সাইট থাকলে বিভিন্ন প্লাগইন ব্যবহার করে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ করা যায়। কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি করা ব্লগে কোন প্লাগইন যোগ করার সুবিধা না থাকায় নিজ থেকে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) করা যায় না। তবে SEO করার প্রধান শর্ত হল ব্লগ বা সাইটের মান ভাল হতে হবে। নিয়মিত আপডেট রাখার চেষ্টা করতে হবে। কপি-পেস্ট অর্থাৎ কারও জিনিস হুবহু নকল করা যাবে না। সার্চ ইঞ্জিনের কাছে সব সাইটের কপি আছে, তাই আপনি কপি-পেস্ট করে সবাইকে বোকা বানাতে পারলেও সার্চ ইঞ্জিনকে বোকা বানাতে পারবেন না। এগুলো ছাড়াও ওয়েব মাস্টার টুল দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি ব্লগ SEO করা যায়। প্রধানত গুগল, ইয়াহু এবং বিং সার্চ ইঞ্জিন ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহারের সুযোগ দিচ্ছে। ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহার করলে আপনার ব্লগে নতুন পোষ্ট করলে তা সাথে সাথে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে চলে যাবে। এছাড়াও আপনার ব্লগ সম্পর্কে সব ধরনের তথ্য সার্চ ইঞ্জিনের কাছে চলে যাবে। এতে আপনার সাইটটি ভাল না খারাপ তা সার্চ ইঞ্জিন কাছ থেকে পর্যবেক্ষন করবে। আপনার সাইট যদি মানসম্মত হয় তাহলে অবশ্যই আপনার ব্লগ SEO হবে। ওয়েব মাস্টার টুল ব্যবহারের জন্য প্রথমে আপনার ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে পরিচিত বা Verify করে দিতে হবে। নিচে গুগল, ইয়াহু এবং বিং এর কাছে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি করা ব্লগ সাইট পরিচিত করার পদ্ধতি দেয়া হল।

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস.কম এ তৈরি ব্লগ ওয়েব মাস্টার টুল দিয়ে SEO করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

গুগল ওয়েব মাস্টার টুলস (Google Webmaster Tools)

১. প্রথমে https://www.google.com/webmasters/tools/ এ গিয়ে আপনার গুগল একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার গুগল একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে Add Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখন আপনার সাইট গুগলে কাছে পরিচিত করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি দেয়া হবে। সেখান থেকে Mete Tag যেটিতে লেখা আছে সেটি সিলেক্ট করুন।

৪. এখন আপনাকে নিচের মত একটি কোড দেয়া হবে। তা সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='google-site-verification' content='dBw5CvburAxi537Rp9qi5uG2174Vb6JwHwIRwPSLIK8'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাশবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Google Webmaster Tools লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটিতে ফিরে গিয়ে Verify এ ক্লিক করুন।

ইয়াহু সাইট এক্সপ্লোরার (Yahoo Site Explorer)

১. প্রথমে https://siteexplorer.search.yahoo.com/ এ গিয়ে আপনার ইয়াহু একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার ইয়াহু একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে My Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখন আপনার সাইট ইয়াহুর কাছে পরিচিত করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি দেয়া হবে। সেখান থেকে META Tag যেটিতে লেখা আছে সেটি সিলেক্ট করুন।

৪. এখন আপনাকে নিচের মত একটি কোড দেয়া হবে। তা সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='y_key' content='3236dee82aabe064'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাসবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Yahoo! Site Explorer লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটিতে ফিরে গিয়ে Ready to Authenticate এ ক্লিক করুন।

Note: It may take up to 24 hours for your site to be authenticated.

বিঃদ্রঃ ইয়াহুতে অথেনটিকেট হতে সর্বোচ্চ ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

বিং ওয়েব মাস্টার সেন্টার (Bing Webmaster Center)

১. প্রথমে http://www.bing.com/webmaster এ গিয়ে আপনার লাইভ (Live!) একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। যদি আপনার লাইভ একাউন্ট না থাকে তাহলে একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এখন Add a Site এ ক্লিক করুন।

৩. এখান আপনার ব্লগের ঠিকানা দিয়ে Submit এ ক্লিক করুন।

৪. এখন আপনাকে কিছু কোড দেয়া হবে। সেখান থেকে Mate Tag কোডটি খুজে বের করুন। এটি দেখাতে নিচের মত। এবার কোডটি সম্পূর্ন সিলেক্ট করে Ctrl + C চেপে কপি করুন।

<meta name='msvalidate.01' content='12C1203B5086AECE94EB3A3D9830B2E'>

৫. এখন এ পেজটি রেখে আরেকটি ট্যাব চালু করে আপনার ব্লগের ড্যাশবোর্ড চালু করুন।

৬. ড্যাশবোর্ডের বাম দিক থেকে Tools এ ক্লিক করুন। তারপর যে পেজটি আসবে সেখানে নিচের দিকে দেখবেন Bing Webmaster Center লেখা একটি বক্স আছে, সে বক্সে ক্লিক করে Ctrl + V চেপে কপি করা কোডটি পেস্ট করুন।

৭. তারপর Save Changes এ ক্লিক করুন।

৮. এবার আবার কোড দেয়ার পেজটি তে ফিরে গিয়ে Return to the Site List এ ক্লিক করুন।

উপরের কাজ গুলো করার সময় বর্ণনার সাথে বাস্তবের কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। আশা করি কোন সমস্যা হবে না। আর কোন সমস্যা হলে আমি তো আছিই। ভাল লাগলে বা কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।